ওয়েব ডেস্ক : কুয়েতে আবাসন শ্রমিকদের একটি ভবনে আগুন লাগায় ৪১ জনের মৃত্যু হয়েছে। এদের মধ্যে বেশ কয়েকজন ভারতীয় রয়েছে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। সংবাদ মাধ্যম সূত্রে খবর, বুধবার ভোরে কুয়েতের দক্ষিণ আহমদী গভর্নরেটের মাঙ্গাফ এলাকায় আবাসন শ্রমিকদের ছয়তলা ভবনের একটি রান্নাঘরে আগুনের সূত্রপাত হয়। ওই ভবনে প্রায় ১৬০ জন লোক বসবাস করেন। তাঁরা সবাই একই কোম্পানির শ্রমিক। সেখানে অনেক শ্রমিক ভারতীয় রয়েছেন বলে জানা গিয়েছে। সেদিকে লক্ষ্য রেখে ভারতীয় দূতাবাস একটি জরুরি হেল্পলাইন নাম্বার (+৯৬৫-৬৫৫০৫২৪৬) চালু করেছে। এই হেল্পলাইনে যোগাযোগ করার জন্য সংশ্লিষ্ট সকলকে অনুরোধ করা হয়েছে। সম্ভাব্য সব ধরনের সহায়তা দিতে দূতাবাস প্রতিশ্রুতিবদ্ধ এক্স-এর একটি পোস্টে জানিয়েছে কুয়েতের ভারতীয় দূতাবাস।

কুয়েতের মোট জনসংখ্যার ২১ শতাংশ (১০ লাখ) এবং কর্মশক্তির ৩০ শতাংশ (প্রায় ৯ লাখ) ভারতীয়। এদিন বিদেশমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর এক্স পোস্টে এক বিবৃতিতে বলেছেন, ‘কুয়েত শহরে অগ্নিকাণ্ডের খবরে গভীরভাবে মর্মাহত। সেখানে ৪০.জনেরও বেশি মৃত্যু হয়েছে এবং ৫০ জনের বেশি হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে বলে জানা গেছে। আমাদের রাষ্ট্রদূত ক্যাম্পে গিয়েছেন। আমরা আরও তথ্যের জন্য অপেক্ষা করছি।’ এছাড়াও ওই বিবৃতিতে তিনি বলেন, ‘যারা মর্মান্তিকভাবে প্রাণ হারিয়েছে তাদের পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা। যারা আহত হয়েছে তাদের দ্রুত ও পূর্ণ সুস্থতা কামনা করছি। আমাদের দূতাবাস এ ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট সকলকে সর্বাত্মক সহায়তা প্রদান করবে।’

সংবাদ মাধ্যম সূত্রে আরও খবর, কুয়েতের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী শেখ ফাহাদ আল-ইউসুফ আল-সাবাহ পুলিশকে মাঙ্গাফ বিল্ডিংয়ের মালিককে গ্রেপ্তার করার নির্দেশ দিয়েছেন। ঘটনাস্থল পরিদর্শনে গিয়ে এক বিবৃতিতে মন্ত্রী বলেন, ‘আজ যা ঘটেছে তা কোম্পানি এবং ভবন মালিকদের লোভের ফল।’ ভবিষ্যতে এ ধরনের দুর্ঘটনা যাতে না ঘটে তার জন্য তিনি কুয়েত মিউনিসিপালিটি এবং জনশক্তি সংক্রান্ত কর্তৃপক্ষকে আবাসন ভবনগুলির নিরাপত্তা সংক্রান্ত ব্যবস্থা খতিয়ে দেখার নির্দেশ দেন।

38 Views