অমর চক্রবর্তী, অশোকনগর

বারাসাতে ছেলেধরা সন্দেহে কয়েকজনকে গণপিটুনির ঘটনায় উত্তাল হয়ে উঠেছে গোটা উত্তর ২৪ পরগনা জেলা। অচেনা মানুষ হলেই তাকে ছেলেধরা বলে সন্দেহ প্রকাশ করছেন কিছু মানুষ। পাশাপাশি সোশ্যাল মিডিয়াতেও চলছে নানা মুখরোচক গল্প ও গুজব। যদিও বারাসাতে কোনও শিশু কিডন্যাপ হয়নি বলে পরিষ্কার জানিয়ে দিয়েছে উত্তর চব্বিশ পরগনা জেলা পুলিশ। বারাসতের ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে সতর্কতামূলক ব্যবস্থা হিসাবে গোবরডাঙ্গা, হাবরা, অশোকনগর, দত্তপুকুর, আমডাঙ্গা-সহ বিভিন্ন থানা এলাকায় মানুষকে সচেতন করার জন্য চলছে মাইকিং। বিশেষ করে বিভিন্ন স্কুলের সামনে পোস্টারও লাগানো হচ্ছে। গুজবে কান না দেওয়ার আবেদন জানানো হচ্ছে। বৃহস্পতিবার অশোকনগর থানা এলাকায় মাইকিং-এর ব্যবস্থা করল পুলিশ।

বিদ্যাসাগর বাণী ভবন স্কুলের প্রধান শিক্ষক মনোজ ঘোষ পুলিশের এই ভূমিকার প্রশংসা করেন। পাশাপাশি, সোশ্যাল মিডিয়ার বিভিন্ন গুজবে কান না দেওয়ার জন্য সাধারণ মানুষের প্রতি আবেদন জানান তিনি। এদিন অশোকনগর থানার বিভিন্ন স্থানে মানুষকে সচেতন করার লক্ষ্যে মাইকে প্রচার করে পুলিশ। পাশাপাশি, পোস্টার লাগানো হয় বিভিন্ন স্কুলের সামনে। মাইক প্রচারে এবং পোস্টারে গুজবে কান না দেওয়ার আহ্বান জানানো হয়। উল্লেখ্য, বারাসাতের ঘটনায় এরমধ্যেই ১৭ জনকে গ্রেফতার করেছে বারাসাত পুলিশ। সব মিলিয়ে ছেলেধরা সন্দেহে যাতে নিরীহ মানুষদের গণপিটুনির শিকার না হতে হয় সেজন্য যথেষ্ট তৎপর বারাসাত পুলিশ ডিস্ট্রিক্ট। আর অশোকনগর থানার পুলিশের তৎপরতাও এদিন ছিল চোখে পড়ার মতো।

67 Views