ওয়েব ডেস্ক : সদ্য নির্বাচিত বিজেপি সাংসদ অভিনেত্রী কঙ্গনা রানাউতের ‘পাঞ্জাবে সন্ত্রাসবাদ বাড়ছে’ মন্তব্যের বিরুদ্ধে মুখ খুললেন পাঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী ভগবন্ত সিং মান। সোমবার তিনি বললেন, কঙ্গনার ‘সন্ত্রাসবাদ’ মন্তব্য ভুল। গত সপ্তাহে চন্ডীগড় বিমানবন্দরে কঙ্গনাকে থাপ্পড় মারেন সিআইএসএফ কনস্টেবল কুলবিন্দর কৌর। রাজধানীতে প্রতিবাদী কৃষকদের অবস্থান বিক্ষোভ নিয়ে অবমাননাকর মন্তব্য করেছিলেন কঙ্গনা। সেই জন্যই শিখ যুবতী, কৃষক কন্যা কুলবিন্দর কৌর তাঁকে থাপ্পড় মেরেছেন বলে খবর। এই ঘটনার পরে এক ভিডিও বিবৃতিতে কঙ্গনা বলেন, পাঞ্জাবে সন্ত্রাসবাদ ও উগ্রপন্থা বাড়ছে। এতে তিনি উদ্বিগ্ন। এদিকে নজর দেওয়া দরকার।
এদিন সংবাদ মাধ্যমকে পাঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী বলেন, প্রতিবাদী কৃষকদের অবস্থান বিক্ষোভ নিয়ে কঙ্গনার পুরনো ওই মন্তব্যে ক্ষুব্ধ ছিল কুলবিন্দর। তাই সে হয়তো এইভাবে প্রতিক্রিয়া দেখিয়েছে, কিন্তু এটা হওয়া উচিত নয়। একই সঙ্গে কঙ্গনার ‘সন্ত্রাসবাদ’ মন্তব্য ভুল ছিল বলেও উল্লেখ করেন ভগবন্ত সিং মান। কঙ্গনা বহু পরিচিতি ব্যক্তি (পাবলিক ফিগার)। সমগ্র পাঞ্জাবকে সন্ত্রাসবাদী বলে দেগে দেওয়া তাঁর ঠিক নয়। তিনি বলেন, পাঞ্জাবের কৃষকরা দেশকে খাদ্যের জোগান দেন, আর সেনা জওয়ানরা দেশের সীমান্তকে সুরক্ষিত রাখে।

প্রসঙ্গত, গত বৃহস্পতিবার চণ্ডীগড় বিমানবন্দরে দিল্লি যাওয়ার বিমান ধরবেন বলে অপেক্ষা করছিলেন
হিমাচল প্রদেশের মান্ডি লোকসভা কেন্দ্র থেকে সদ্য নির্বাচিত বিজেপি সাংসদ অভিনেত্রী কঙ্গনা রানাউত।কৃষকদের অসম্মান করেছেন অভিযোগ এনে তখন তাঁকে একটি থাপ্পড় মারেন সিআইএসএফ কনস্টেবল শিখ যুবতী কুলবিন্দর কৌর। কয়েক ঘন্টার মধ্যে বরখাস্ত করা হয় কৌরকে এবং এই ঘটনার তদন্তের নির্দেশ দেওয়া হয়। শুক্রবার সকালে গ্রেফতার করা হয় তাঁকে। তাঁর ও কঙ্গনার বচসার ভিডিও অনলাইনে ছড়িয়ে পড়ার পরে কৌর বলেন, মোদি সরকারের কৃষি আইনের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ সম্পর্কে ২০২০ সালে অভিনেত্রীর একটি মন্তব্যের প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন তিনি। উল্লেখ্য, কৃষি আইনের বিরুদ্ধে দেশব্যাপী আন্দোলনের সূত্রপাত করেছিলেন কৃষকরা। দিল্লির রাজপথে ব্যারিকেড গড়ে তুলেছিলেন। কুলবিন্দর কৌর বলেন, ‘তিনি (মিসেস রানাউত) একটি বিবৃতি দিয়েছিলেন… কৃষকরা ১০০ টাকার জন্য বসে আছে। তিনি কি যাবেন এবং বসবেন? যখন তিনি এই কথা বলেন, তখন আমার মা বসেছিলেন এবং প্রতিবাদ করছিলেন …।’

একটি ভাইরাল হওয়া মোবাইল ফুটেজটিতে দেখা গিয়েছে, মিসেস রানাউত একটি চেক-ইন কাউন্টারে যান এবং সেখানে পৌঁছোনোর পর কুলবিন্দর কৌরের সঙ্গে তাঁর ঝগড়া শুরু হয়। যদিও ওই ভিডিওতে তাঁকে চড় মারা হচ্ছে দেখা যাচ্ছে না। প্রাথমিকভাবে শান্ত থাকলেও পরে ‘পাঞ্জাবে সন্ত্রাস বৃদ্ধি’ নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেন কঙ্গনা। এক বার্তায় তিনি বলেন, ‘এই ঘটনা ঘটেছে সিকিউরিটি চেক-ইন এ। মহিলা নিরাপত্তা কর্মী আমার পার হওয়ার জন্য অপেক্ষা করছিল। তখন সে এসে আমাকে আঘাত করে। কেন সে আমাকে আঘাত করল জানতে চাইলাম। সে বলল, আমি কৃষকদের সমর্থন করি।’ কঙ্গনা আরও বলেন, ‘আমি নিরাপদ… কিন্তু আমার উদ্বেগ হলো পাঞ্জাবে সন্ত্রাস বাড়ছে। আমরা কীভাবে এর মোকাবিলা করব?’ প্রসঙ্গত, মোদি সরকারের কৃষি আইনের বিরুদ্ধে রাজধানী দিল্লিতে যখন হাজার হাজার কৃষক প্রতিবাদে ফেটে পড়ছে, তখন কৃষকদের প্রতিবাদে সামিল এক বয়স্ক মহিলার ছবি দিয়ে ট্যুইট করেন কঙ্গনা। তিনি লেখেন, ‘১০০ টাকায় উপলব্ধ।’ যদিও তাঁর এই মন্তব্যে বহু মানুষ ক্ষুব্ধ হওয়ার পরে ট্যুইটটি মুছে ফেলতে বাধ্য হন তিনি। মোদি সরকারের কৃষি আইন বাতিল, ফসলের ন্যুনতম সহায়ক মূল্য নিশ্চিত করা-সহ একাধিক দাবিতে ২০২০-২১ সালে তীব্র আন্দোলন গড়ে তোলেন কৃষকরা। যদিও মোদি নেতৃত্বাধীন বিজেপি সরকার কৃষকদের দাবি মেনে নেয়নি। যার ফলে হরিয়ানা এবং উত্তরপ্রদেশের মতো কৃষিপ্রধান রাজ্যে লোকসভা নির্বাচনে বিজেপি বেশ কিছু আসন হারিয়েছে। পাশাপাশি, কৃষক আন্দোলনের বিরুদ্ধে মন্তব্য করার কারণে সম্প্রতি কঙ্গনা রানাউতের কনভয়ও আটকে দিয়েছিল কৃষকরা। চণ্ডীগড়ে প্রচারে যাওয়ার চেষ্টা করার সময় তাঁর কনভয় আটকে দেয় তাঁরা।

এ ঘটনার পর সংযুক্ত কিষাণ মোর্চা কুলবিন্দর কৌরের প্রতি সমর্থন প্রকাশ করেছে এবং তদন্তের আহ্বান জানিয়েছে। ২০২০-২১ সালে কৃষক আন্দোলনের লাখ লাখ কৃষকদের নেতৃত্বে ছিল একাধিক কৃষক সংগঠনের যৌথ মঞ্চ সংযুক্ত কিষাণ মোর্চা ৷ কিষাণ মোর্চার নেতা জগজিৎ সিং ডাল্লেওয়াল বলেছেন, ‘আমরা একটি সঠিক তদন্ত দাবি করছি… মহিলা কনস্টেবলের সঙ্গে কোনও অবিচার করা উচিত নয়।’ একটি অসমর্থিত প্রতিবেদনের উদ্ধৃতি দিয়ে তিনি বলেন, দিল্লির ফ্লাইটে ওঠার আগে অভিনেত্রী-রাজনীতিক কঙ্গনা রানাউতের হ্যান্ডব্যাগ এবং মোবাইল পরীক্ষা করতে বলেছিলেন কুলবিন্দর কৌর। রানাউতের ট্র্যাক রেকর্ড এবং কৃষকদের প্রতি তিনি যে ধরনের ভাষা ব্যবহার করেছেন তা সকলেই জানেন। সেখানে নিশ্চয়ই কোনও তর্কাতর্কির কারণে ঘটনাটি ঘটেছে। সঠিক তদন্ত প্রয়োজন।’ অন্যদিকে, হরিয়ানার মুখ্যমন্ত্রী নয়াব সিং সাইনি বলেছেন, তদন্ত চলছে। ‘অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এটা দুঃখজনক যে একজন নিরাপত্তাকর্মী এতে জড়িত। যা হয়েছে তা ভুল…।’

28 Views