ওয়েব ডেস্ক : কাল ১ জুন লোকসভা নির্বাচনের শেষ দফার ভোট। তার আগে উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে দক্ষিণ ২৪ পরগনা জেলার ভাঙর। অভিযোগ, ইন্ডিয়ান সেকুলার ফ্রন্ট (আইএসএফ)-এর সমর্থকদের বোমাবাজিতে জখম হয়েছেন পাঁচজন তৃণমূল কংগ্রেস কর্মী। শুক্রবার এমনটাই জানিয়েছে পুলিশ। যদিও ভাঙরের বিধায়ক তথা আইএসএফ নেতা নওসাদ সিদ্দিকী
তাঁর দলের সমর্থকদের বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ খারিজ করে দেন। তিনি বলেন, তৃণমূল কর্মীরা আইএসএফ সমর্থকদের দিকে বোমা ছুঁড়েছে। তবে আহত হয়েছে তৃণমূলের লোকেরাই। উল্লেখ্য, যাদবপুর লোকসভা কেন্দ্রের অধীন ভাঙরে শনিবার শেষ দফায় ভোট হবে। জানা গিয়েছে, বৃহস্পতিবার রাতে তৃণমূল কর্মীরা যখন বাড়ি ফিরছিলেন তখন এই ঘটনা ঘটে। আহত তৃণমূল কর্মীদের কলকাতার একটি সরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে আহত কর্মীদের দেখতে যান রাজ্যের মন্ত্রী অরূপ বিশ্বাস, যাদবপুরের তৃণমূল প্রার্থী সায়নি ঘোষ এবং দলের বিধায়ক সওকত মোল্লা। নওসাদ সিদ্দিকী আইএসএফের বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, ভাঙরে পরাজয়ের ভয়ে উদ্দেশ্যমূলকভাবে এই ধরনের ঘটনা ঘটাচ্ছে তৃণমূল। আর আমাদের উপর দোষ চাপাচ্ছে। গতকাল সওকত মোল্লার সমর্থকরা আইএসএফ কর্মীদের লক্ষ্য করে বোমা ছুড়েছে। কিন্তু এই ঘটনায় তাদের নিজের দলের লোকজনই আহত হয়েছে। এদিকে, ভোটের দিন মোল্লাকে তার ক্যানিং পূর্ব নির্বাচনি এলাকা থেকে বের না হওয়ার নির্দেশ দিয়েছে নির্বাচন কমিশন।

30 Views