এফসিআই গোডাউনে খাদ্যদ্রব্য নষ্ট হয় না, দাবি উত্তর ২৪ পরগনা ডিপো ইনচার্জের

ওয়েব ডেস্ক : ফুড কর্পোরেশন অফ ইন্ডিয়া (এফসিআই) বা ভারতের খাদ্য নিগমের গোডাউনে খাদ্যদ্রব্য পচে যায় না বা নষ্ট হয় না। এনিয়ে অপপ্রচার রয়েছে বলে দাবি করেন উত্তর ২৪ পরগনা জেলার একমাত্র এফসিআই গোডাউন অশোকনগরের ডিপো ইনচার্জ প্রসূন তহবিলদার। সোমবার তিনি বলেন, নিয়মমাফিক খাদ্যদ্রব্য সংরক্ষণ করে এফসিআই। একমাত্র আমফান ধরনের প্রাকৃতিক বিপর্যয়ে গোডাউনের চাল উড়ে যাওয়ার মতো ঘটনায় জলে ভিজে কখনও-সখনও কিছু খাদ্যদ্রব্য নষ্ট হয়। তিনি আরও বলেন, খাদ্যশস্য সংগ্রহ, সংরক্ষণ, পরিবহণ এবং বিতরণ করে এফসিআই। করোনার সময় থেকে এ পর্যন্ত জেলায় রেশনে বিনামূল্যে দুই লাখ ৬০ হাজার মেট্রিকটন গম এবং আর এক লাখ ৬০ হাজার মেট্রিকটন চাল বিতরণ করেছে এফসিআই। এফসিআই গোডাউনে পর্যাপ্ত খাদ্যশস্য রয়েছে উল্লেখ করে সোমবার তিনি বলেন, করোনার সময় ২০২০ সালের মার্চ মাস থেকে জাতীয় খাদ্য সুরক্ষা আইনে রেশনে নিয়মিত চাল-গম দেওয়ার পাশাপাশি প্রধানমন্ত্রী গরিব কল্যাণ খাদ্য অন্ন যোজনার মাধ্যমে চাল এবং গম বিনামূল্যে বিতরণ করছে ভারত সরকার। তাদের গোডাউনে খাদ্যশস্য পচে যাওয়ার অভিযোগ অস্বীকার করেন তিনি। কিভাবে গোডাউনে খাদ্যশস্য সংরক্ষিত করা হয়, সংগৃহীত চাল-গমের নমুনা নিয়ে কিভাবে তারা পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে সংরক্ষিত করেন তা দেখান তিনি। এফসিআই স্বচ্ছতার সঙ্গে কাজ করে বলেও দাবি করেন উত্তর ২৪ পরগনা জেলার একমাত্র গোডাউন এফসিআই অশোকনগরের ডিপো ইনচার্জ প্রসূন তহবিলদার।

ওয়েব ডেস্ক

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Next Post

বৈশাখীর স্বাস্থ্য শিবিরে বিনামূল্যে স্বাস্থ্য পরীক্ষা ৫০ জনেরও বেশি মানুষের

Wed Nov 9 , 2022
ওয়েব ডেস্ক : বিনামূল্যে ৫০ জনেরও বেশি মানুষের স্বাস্থ্য পরীক্ষা করল অশোকনগর বৈশাখী সাংস্কৃতিক সংস্থা। মঙ্গলবার উত্তর ২৪ পরগনা জেলার অশোকনগর আশ্রাফাবাদে দেশবন্ধু প্রাথমিক স্কুলে স্বাস্থ্য শিবির সংগঠিত করে এই স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন। বিপি পোদ্দার হাসপাতালের সহযোগিতায় আয়োজিত এই শিবিরে বিনামূল্যে ৫০ জনেরও বেশি মানুষের স্বাস্থ্য পরীক্ষা করা হয়। পাশাপাশি বিনামূল্যে […]

Breaking News